তিস্তা চুক্তি নিয়ে ফের আশ্বাস মোদির

0
17
-

Narendra Modi on of Teesta water_picদেশ প্রতিক্ষণ, ঢাকা: আন্তর্জাতিক নদী তিস্তার পানি বণ্টন নিয়ে বাংলাদেশকে ফের আশ্বাস দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এই চুক্তি সম্পন্ন করতে ‘সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে আলোচনা’ হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

রোববার ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে ইন্টারন্যাশনাল সোলার অ্যালায়েন্স (আইএসএ) ফাউন্ডিং কনফারেন্স-এর সাইডলাইনে এক বৈঠকে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে তিনি এই আশ্বাস দেন।

বৈঠক শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদিন বলেন, বৈঠকে রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য তিস্তার পানির পর্যাপ্ততার উপর গুরুত্বারোপ করেন। জবাবে মোদি বলেন, সবাইকে সঙ্গে নিয়ে তার সরকার বিষয়টি সমাধানে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির নাম উল্লেখ না করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আলোচনার টেবিলে আমরা তাকেও রাখার চেষ্টা করছি।’

উল্লেখ্য, কয়েক বছর আগে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের বাংলাদেশ সফরের সময় তিস্তা চুক্তি সই হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কথিত আপত্তির মুখে সে সময় চুক্তিটি সই হয়নি।

এরপর দু’দেশের সরকার প্রধান পরবর্তীতে দু’দেশ সফর করলেও আলোর মুখ দেখেনি তিস্তা চুক্তি। ‘মমতা অজুহাত’ দেখিয়ে বরাবরের মতো আন্তর্জাতিক এই নদীর পানি বণ্টনের বিষয়টি এড়িয়ে আসছে ভারত।

এছাড়া বৈঠকে মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ মিলিশিয়াদের গণহত্যার মুখে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নিরাপদ, মর্যাদাপূর্ণ এবং টেকসই প্রত্যাবাসনের বিষয়ে ভারতের সহযোগিতা চান রাষ্ট্রপতি।

জবাবে নরেন্দ্র মোদি বলেন, বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। এটাকে বড় ধরনের সমস্যা বিবেচনা করে বাংলাদেশকে সহযোগিতারও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

এসময় বাংলাদেশের অব্যাহত সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ভূয়সী প্রশংসা করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া দ্বিতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট হওয়ায় আবদুল হামিদকে অভিনন্দন জানান তিনি।

আইএসএ সম্মেলনে যোগ দিতে বর্তমানে চার দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতে অবস্থান করছেন রাষ্ট্রপতি। সম্মেলনে বাংলাদেশসহ ২৩টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এবং মন্ত্রিপর্যায়ের নয়জন প্রতিনিধি অংশ নিচ্ছেন।


-

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here