লেনদেন ৩০ মিনিটে বাড়িয়ে কি লাভ!

0
274
-

DSEদেশ প্রতিক্ষণ, ঢাকা: পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) ৩০ মিনিট বেশি লেনদেন হয়েছে। তবে বাড়তি এ ৩০ মিনিটেই নিম্নমুখী থেকেছে সূচক। ফলে লেনদেন শেষে ঘটেছে সূচকের পতন।

মূল্য সূচকের পাশাপাশি লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দামও কমেছে। তবে এদিন লেনদেনের শুরুতে সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ে। ফলে শুরুতে মূল্য সূচকের বড় উত্থানও হয়। কিন্তু সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সূচকের ঊর্ধ্বমুখীতায় ছেদ পড়ে।

লেনদেনের স্বাভাবিক সময় দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচক ধনাত্মক ছিল। কিন্তু অতিরিক্ত লেনদেন হওয়া ৩০ মিনিটে প্রায় সবকটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমে। ফলে নিম্নমুখী হয় সূচক। এতে ঋণাত্মক হয়ে পড়ে দুই বাজারেরই প্রধান মূল্য সূচক।

সূচকের পতন হলেও এদিন লেনদেন কিছুটা বেড়েছে। দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮৬১ কোটি সাত লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৭১৪ কোটি আট লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১৪৬ কোটি ৯৯ লাখ টাকা।

তবে লেনদেনের বাড়লেও কমেছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১০৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৮৫টির। আর ৪০টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমার কারণে লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৪ পয়েন্ট কমে পাঁচ হাজার ৫২৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

অবশ্য অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ছয় পয়েন্ট কমে এক হাজার ৯৩২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। তবে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক চার পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ২৭৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

টাকার অঙ্কে এদিন ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে কেপিসিএলের শেয়ার। কোম্পানিটির ৮১ কোটি ২৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাকটিভ ফাইনের ৭৭ কোটি ৮৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৪৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিবিএস কেবলস।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন, নাহি অ্যালুমেনিয়াম, শাশা ডেনিম, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইফাদ অটোস, ওয়াইম্যক্স এবং ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ২২ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ৩৩৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। লেনদেন হয়েছে ৪২ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৪৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯১টির দাম বেড়েছে। দাম কমেছে ১৩৪টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির।


-

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here