দেশ প্রতিক্ষণ, ঢাকা: পুঁজিবাজারে সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক বেড়েছে ৬১ পয়েন্টের বেশি। এমন উত্থানেও সূচককে টেনে ধরার সর্বোচ্চ চেষ্টায় ছিলো পাঁচ কোম্পানি। এই পাঁচ কোম্পানির দায়ে আজ ডিএসইর সূচক বৃদ্ধি বাধাগ্রস্থ হয়েছে সাড়ে ৯ পয়েন্ট বা মোট উত্থানের সাড়ে ১৫ শতাংশ।



এই পাঁচ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে ওয়ালটন, ইউনাইটেড পাওয়ার, গ্রামীণফোন, বার্জার পেইন্ট এবং সিটি ব্যাংক লিমিটেড। আমারস্টক সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে। সূত্রমতে, আজ ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড সবচেয়ে বেশি সূচক টেনে ধরার চেষ্টায় ছিলো।

ডিএসইর সূচক টেনে ধরার ক্ষেত্রে আজ কোম্পানিটির দায় ছিলো ৩.১০ পয়েন্ট। আজ কোম্পানিটির শেয়ারদর কমেছে ০.৫৭ শতাংশ। যে কারণে ডিএসইর সূচক কমেছে ৩.১০ পয়েন্ট। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১১৪২ টাকা ৫০ পয়সায়। আগেরদিন কোম্পানির ক্লোজিং দর ছিল ১১৪৯ টাকা।

ডিএসইর সূচক টেনে নামানোর চেষ্টায় দ্বিতীয় কোম্পানি ছিল ইউনাইটেড পাওয়ার অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড। আজ কোম্পানিটির শেয়ার দর কমেছে ০.৮৫ শতাংশ। এতে আজ ডিএসইর সূচক কমেছে ২.০১ পয়েন্ট। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৫৭ টাকা ৫০ পয়সায়। আগেরদিন কোম্পানির ক্লোজিং দর ছিল ২৫৯ টাকা ৭০ পয়সা।

ডিএসইর সূচক টেনে নামানোর চেষ্টায় তৃতীয় কোম্পানি ছিল গ্রামীণফোন লিমিটেড। আজ কোম্পানিটির শেয়ার দর কমেছে ০.১৭ শতাংশ। এতে আজ ডিএসইর সূচক কমেছে ১.২৭ পয়েন্ট। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৩৫০ টাকায়। আগেরদিন কোম্পানির ক্লোজিং দর ছিল ৩৫০ টাকা ৬০ পয়সা।

ডিএসইর সূচক টেনে নামানোর চেষ্টায় ৪র্থ কোম্পানি ছিল বার্জার পেইন্টস লিমিটেড। আজ কোম্পানিটির শেয়ার দর কমেছে ০.৮০ শতাংশ। এতে আজ ডিএসইর সূচক কমেছে ১.০৪ পয়েন্ট। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৭৬৩ টাকা ৩০ পয়সায়। আগেরদিন কোম্পানির ক্লোজিং দর ছিল ১৭৭৭ টাকা ৫০ পয়সা।

ডিএসইর সূচক টেনে নামানোর চেষ্টায় ৫ম কোম্পানি ছিল সিটি ব্যাংক লিমিটেড। আজ কোম্পানিটির শেয়ার দর কমেছে ২.১৪ শতাংশ। এতে আজ ডিএসইর সূচক কমেছে ১.০১ পয়েন্ট। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৭ টাকা ৪০ পয়সায়। আগেরদিন কোম্পানির ক্লোজিং দর ছিল ২৮ টাকা।