দেশ প্রতিক্ষণ, ঢাকা: প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক পুঁজিবাজারে ভালো প্রভাব ফেলবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। বুধবার (১ ডিসেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠক নিয়ে এ মন্তব্য করেন বিএসইসি চেয়ারম্যান। এদিন বেলা ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে তার কার্যালয়ে যান বিএসইসি চেয়ারম্যান।



প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার ফলাফল কী- এমন প্রশ্নে তিনি জানান, ‘প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমার একান্তে বৈঠক হয়েছে। সিদ্ধান্ত কী হয়েছে, সেটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশের আগে আমার বলা উচিত হবে না।’ কিন্তু বৈঠকের বিষয়ে বিনিয়োগকারীদের জন্য কী বার্তা থাকবে- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘সুপার হয়েছে। এক্সিলেন্টও।’

যে আলোচনা হয়েছে, তা পুঁজিবাজারে কেমন প্রভাব ফেলবে- এই প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘অনেক ভালো হবে। সব আলোচনা হয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ে।’ বিস্তারিত না জানালেও বিএসইসি চেয়ারম্যান জানিয়ছেন, পুঁজিবাজারের সার্বিক অবস্থা সম্পর্কে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন। কোন কোন বাধার কারণে পুঁজিবাজার তার নিজস্ব গতিতে যেতে পারছে না, সে বিষয়গুলোও তুলে ধরেছেন তিনি।

এর আগে মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সঙ্গে বিএসইসির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বহুল প্রতীক্ষিত সেই বৈঠক শেষে বিএসইসির পক্ষ থেকে নেতৃত্ব দেয়া কমিশনার শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ জানান, তারা যেসব দাবি তুলেছিলেন, তা মেনে নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বন্ডে বিনিয়োগ ব্যাংকের বিনিয়োগসীমার বাইরে থাকবে। আবার সারা পৃথিবীর মতো ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা বা এক্সপোজার লিমিট শেয়ারের ক্রয়মূল্যে বিবেচনার বিষয়য়েও কেন্দ্রীয় ব্যাংক একমত হয়েছে নীতিগতভাবে।

আজ সরকারপ্রধানের সঙ্গে আলোচনাতেও বিনিয়োগ সীমার মধ্যে বন্ড অন্তর্ভুক্ত থাকা ও বাজার দরের পরিবর্তে কস্ট প্রাইসে বিনিয়োগ সীমা গণনার বিষয়টি পুঁজিবাজারের উন্নয়নে সবচেয়ে বড় বাধা বলে উল্লেখ করেন বিএসইসি চেয়ারম্যান।। ব্যাংক আইনে বন্ড নিয়ে জটিলতার বিষয়টিও প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন তিনি। একইসঙ্গে বাজারের গতি বাড়াতে স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ডের ব্যবহার এবং ব্যাংক ও লিজিং কোম্পানির নগদ লভ্যাংশ প্রদানের ক্ষেত্রে বিভিন্ন জটিলতাসহ অন্যান্য বিষয়গুলো তুলে ধরেন।