দেশ প্রতিক্ষণ, ঢাকা: পুঁজিবাজারে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৬৭টির বা ১৭.৬৩ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। বিপরীতে ২৬৩টির বা ৬৯.২১ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। এদিন সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা ৫ শতাংশ স্পর্শ করে ক্রেতাশূন্য ছিল ২৯ কোম্পানি। ডিএসই সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।



সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা ৫ শতাংশ স্পর্শ করে ক্রেতাশূন্য কোম্পানিগুলো হলো: ফনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড পেপার প্রসেসিং এসিআই ফরমুলেশন বঙ্গজ লিমিটেড, আরডি ফুড, তাকাফুল ইসলামী ইন্স্যুরেন্স, ইন্টার্নেশনাল লিজিং, প্যারামাউন্ট ইন্সুরেন্স, ন্যাশনাল টি কোম্পানি, এনআরবিসি ব্যাংক, ফু-ওয়াং সিরামিক, সোনালী পেপার, পূরবী জেনারেল ইন্সুরেন্স, সালভো কেমিক্যাল,

এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, মার্কেনটাইল ইন্স্যুরেন্স, বিএসআরএম লিমিটেড, বিচ হ্যাচারি, জেএমআই হসপিটাল, মনোস্পূল পেপার, সিএপিএম বিডিবিএল মিচুয়াল ফান্ড, ঢাকা ডাইং, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, ইসলামী ইন্সুরেন্স, এমবি ফার্মা, জুট স্পিনার্স, সাফকো স্পিনিং এবং প্রাইম ফাইন্যান্স।

লেনদেন চলাকালীন সময়ে এসব কোম্পানির শেয়ারদর সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা স্পর্শ করে লেনদেন হয়। কোম্পানিগুলোর মধ্যে কিছু কোম্পানির শেয়ার লেনদেনের শেষভাগে সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা অতিক্রম করার চেষ্টা করলেও সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ার সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমায় আটকে ছিল। কোম্পানিগুলোর শেয়ার দরের বিবরণ নিচে দেয়া হলো-

ফনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড: আগেরদিন বুধবার কোম্পানিটির শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ১০ টাকা। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৯ টাকা ৫০ পয়সায়। এ হিসেবে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৫০ পয়সায়। বা ৫ শতাংশ কমেছে। শেষ পর্যন্ত কোম্পানিটি সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা স্পর্শ করে ক্রেতা শূন্য অবস্থায় ছিল।

পেপার প্রসেসিং: আগেরদিন বুধবার কোম্পানিটির শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ১৯৫ টাকা ১০ পয়সায়। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৮৫ টাকা ৪০ পয়সায়। এ হিসেবে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৯ টাকা ৭০ পয়সায়। বা ৪.৯৭ শতাংশ কমেছে। শেষ পর্যন্ত কোম্পানিটি সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা স্পর্শ করে ক্রেতা শূন্য অবস্থায় ছিল।

এসিআই ফরমুলেশন: আগেরদিন বুধবার কোম্পানিটির শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ১৯১ টাকা ১০ পয়সায়। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৮১ টাকা ১০ পয়সায়। এ হিসেবে কোম্পানিটির শেয়ার দর ১০ টাকা। বা ৪.৯৭ শতাংশ কমেছে। শেষ পর্যন্ত কোম্পানিটি সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা স্পর্শ করে ক্রেতা শূন্য অবস্থায় ছিল।

বঙ্গজ লিমিটেড: আগেরদিন বুধবার কোম্পানিটির শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ১৫৯ টাকা ২০ পয়সায়। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৫১ টাকা ৩০ পয়সায়। এ হিসেবে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৭ টাকা ৯০ পয়সায়। বা ৪.৯৬ শতাংশ কমেছে। শেষ পর্যন্ত কোম্পানিটি সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা স্পর্শ করে ক্রেতা শূন্য অবস্থায় ছিল।

আরডি ফুড: আগেরদিন বুধবার কোম্পানিটির শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৫২ টাকা ৬০ পয়সায়। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৫০ টাকা। এ হিসেবে কোম্পানিটির শেয়ার দর ২ টাকা ৬০ পয়সায়। বা ৪.৯৪ শতাংশ কমেছে। শেষ পর্যন্ত কোম্পানিটি সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা স্পর্শ করে ক্রেতা শূন্য অবস্থায় ছিল।

এছাড়া, ৪.৯৩ শতাংশ থেকে ৪.৭৬ পর্যন্ত পতন হয়েছে ৫ কোম্পনির, ৪.৬৮ থেকে ৪.৪৪ পর্যন্ত পতন হয়েছে ৫ কোম্পানির, ৪.৪৩ থেকে ৪.৪১ পর্যন্ত পতন হয়েছে ৯ কোম্পানির এবং ৩.৯৬ শতাংশ থেকে ৩.৬৭ শতাংশ পর্যন্ত পতন হয়েছে ৬ কোম্পানির।